টিকটক থেকে টাকা আয়ের সেরা আপডেট উপায় ২০২২ । Earn Money From tiktok

হেলো বন্ধুরা, সকলেই কেমন আছেন? আসাকরি আপনারা সকলেই ভালো আছেন। বর্তমান বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় short ভিডিও প্লাটফর্ম হিসেবে শীর্ষ স্থান দখল করে আছে টি'ক'ট'ক। দিন দিন টিকটক যেভাবে জনপ্রিয়তা লাভ করছে, তাতে ধারণা করা যায় কয়েক বছরের ভেতর টিকটিক সকল সোসাল মিডিয়াকে পেছনে ফেলে দিবে। 

ত এখন থেকে আপনি টিকটিক ভিডিও আপলোড করেও অর্থ উপার্জন করতে পারবেন। আর এটি হচ্ছে টিকটিকের সর্বশেষ একটি আপডেট। ত আজকের এই আর্টিকেলে আমি সম্পূর্ণ প্রসেসটি  বুঝনোর চেস্টা করব, কিভাবে আপনারা টিকটক থেকে টাকা আয় করতে পারবেন। 

টিকটিক থেকে টাকা আয়ের সেরা উপায়

টিকটিক থেকে টাকা আয়ের সেরা আপডেট উপায় ২০২২

• Gift : টিকটক গিফট থেকে যেভাবে লাখ টাকার বেশি আয় করা যায়:

টিকটিক থেকে টাকা আয়ের সেরা উপায়

টিকটিক থেকে টাকা আয়ের সেরা উপায়

টিকটিক থেকে টাকা আয়ের সেরা উপায়

• প্রথমে আপনি আপনার টিকটিক অ্যাপটি অপেন করে প্রফাইলে চলে যান।

• তারপর থ্রি ডটে ক্লিক করে creator tools অপশনে প্রবেশ করুন। 

• তারপর gift অপশনে ক্লিক করুন এবং সেটি অন করুন। তবে দেখবেন অনেকেরই gift অপশন টি চালু হবে না।

যেভাবে gift অপশন চালু করবেন?

টিকটিক থেকে টাকা আয়ের সেরা উপায়

ইউটিউব বা ফেসবুকে মনিটাইজেশন পাওয়ার জন্য যেমন কিছু শর্ত পূরণ করতে হয়, তেমনি টিকটকের gift অপশনটি চালু করার জন্যও কিছু শর্ত রয়েছে। যেমন:

 • আপনার প্রফাইলে ১ লাখ ফলোয়ার থাকতে হবে।  আর টিকটকে ১ লাখ ফলোয়ার করা তেমন কঠিন কোনো বিষয় নয়।

 •আপনার ভিডিওগুলো gift পাবার উপযুক্ত থাকতে হবে। মানে এডাল্ট বা ১৮'+' কোনো কন্টেন্ট থাকা যাবে না।

 •আপনকে ৩০ দিন আপনার একাওন্ট একটিভ রাখতে হবে মানে ৩০ দিন নিয়মিত কন্টেন্ট আপলোড করতে হবে।

 •উপরের দুটি বিষয় মেনে কাজ করতে হবে।

ত বন্ধুরা এই তিনটি বিষয় বা শর্ত মেনে চললেই আপনি খুব সহজেই টিকটিকের gift অপশন চালু করতে পারবেন।

এখন আসি gift থেকে আপনার কিভাবে আয় হবে?

টিকটিক থেকে টাকা আয়ের সেরা উপায়

মনে করি, আপনার টিকটকে ২ লাখের বেশি ফলোয়ার রয়েছে এবং আপনার অনেক পাগ'লা ভ'ক্ত'ও রয়েছে। ত এখন আপনার ফলোয়ার ইচ্ছা করলে আপনার ভিডিওতে স্টিকার বা কয়েন গিফট করতে পারবে।

• ৭০ কয়েন ৮০ টাকা

• ৩৫০ কয়েন ৪২০ টাকা

• ৭০০ কয়েন ৮৫০ টাকা

• ১৪০০ কয়েন ১৭০০ টাকা

• ইত্যাদি

 ত আপনার ফলোয়ারও যদি আপনার ভিডিওতে কিছু কয়েন গিফট করে তাহলেও আপনার ভালো আয় হবে। আমেরিকা বা অন্যান্য উন্নত দেশগুলোতে এভাবে টিকটক সেলেব্রিটিরা ভালো পরিমাণ অর্থ আয় করে থাকে। তবে বাংলাদেশ থেকে এই পদ্ধতিতে আয় অনেক কম হবে। তার মূল কারণ হচ্ছে, অনেক টিকটক ব্যবহার কারীর ভিসা বা মাস্টার কার্ড নেই। তারপরও মোটামুটি আয় করতে পারবেন। আর কয়েনগুলো কনভার্ট করে টাকাতে রূপান্তর করে সেটা ব্যাংকের মাধ্যমে উত্তোলন করতে পারবেন।

• নিজস্ব ব্রেন্ড প্রমোট: টিকটিকে রয়েছে মিলিয়ন মিলিয়ন ট্রাফিক। আবার অন্যান্য সোসাল মিডিয়ার তুলনায় টিকটকে ভিডিও আপলোড করলে সেটি তারাতাড়ি ভা'ই'রাল হয়। ত এই সুযোগটি কাজে লাগিয়ে আপনি আপনার নিজস্ব ব্যান্ড টিকটকের মাধ্যমে প্রমোট করতে পারেন। 

উদাহরণঃ ইউটিউব বা ফেসবুক পেজের মাধ্যমে মনিটাইজেশনের মাধ্যমে টাকা আয় করা যায়৷ ত আপনার যদি একটি ইউটিউব চ্যানেল বা ফেসবুক পেজ থাকে তাহলে সেই চ্যানেল বা পেজে নিয়মিত ভিডিও আপলোড করার পাশাপাশি আপনার ভিডিওগুলোর shorts clip টিকটকে আপলোড করতে পারেন। এতে করে টিকটক থেকেও আপনার চ্যানেল বা পেজে ভিজিটর আসবে৷ যার ফলে আপনার আপনার চ্যানেল বা পেজে যদি মনিটাইজেশন অন করা থাকে তাহলে টিকটিক থেকে অধিক ভিজিটর আসার ফলে আপনার ইনকাম অগের তুলনায় অনেক বেশি হবে।

• অনলাইন প্রোডাক্ট সেল: আপনি টিকটিক কে কাজে লাগিয়ে অনলাইনে প্রোডাক্ট বিক্রি করতে পারেন। 

উদাহরণঃ আপনি একটি কোম্পানি থেকে ১ হাজার পিস রূপচর্চার ক্রিম বা কোনো একটি প্রোডাক্ট ক্রয় করলেন। প্রতি প্রডাক্ট ক্রয় করলেন ২০০ টাকা করে এবং তা বিক্রি করলেন ৩০০ টাকা করে। মানে প্রতি বিক্রিতে আপনার আয় হবে ১০০ টাকা। ত আগেই বললাম টিকটকে রয়েছে মিলিয়ন ট্রাফিক এবং এখানে ভিডিও তারাতাড়ি ভাইরাল হয়। ত আপনি সেই প্রোডাক্ট টির shorts ভিডিও তৈরি করে টিকটকে আপলোড করতে পারেন এবং আপনার কন্টাক্ট ডিটেইস আপনার টিকটক প্রফাইলে সেয়ার করতে পারেন। এতে করে যাদের ই আপনার প্রোডাক্ট টি প্রয়োজন হবে তারা আপনার সাথে যোগাযোগ করে প্রোডাক্ট টি ক্রয় করবে। ত প্রতিদিন যদি ১০ টিও প্রোডাক্ট বিক্রি করতে পারেন তাহলে আপনার আয় হবে ১০০০ টাকা। ত এভাবে টিকটকেট মাধ্যমে প্রোডাক্ট বিক্রি ব্যবসাটি শুরু করতে পারেন।

• স্পনসরঃ ইউটিউবারদের পাশাপাশি টিকটকাররাও বর্তমানে অনেক স্পনসর পেয়ে থাকে। ত আপনার টিকটক প্রফাইলে যদি ভালো ফলোয়ার থাকে তাহলে আপনি বিভিন্ন কম্পানির কাছ থেকে স্পনসর পাবেন। এতে করে আপনার ভালো ইনকাম হবে।

• প্রতিযোগিতা: টিকটিক বা প্রতিটি সোসাল মিডিয়াতেই প্রতিযোগিতা হয়ে থাকে। ত আপনি টিকটকের বিভিন্ন কন্টেস্ট বা প্রতিযোগিতায় অংশ গ্রহন করে জয় হতে পারলে ভালো পরিমাণ অর্থ আয় করতে পারবেন।

ত বন্ধুর এভাবেই আপনার টিকটক থেকে সহজেই ভালো পরিমান অর্থ আয় করতে পারবেন। ত এরকম আর্টিকেল পেতে নিয়মিত আমাদের সাইটটি ভিজিট করুন।

Post a Comment (0)
Previous Post Next Post